সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » Box 2 » শরণার্থী সংখ্যা অতিরঞ্জিত: বর্মী সেনাপ্রধান


শরণার্থী সংখ্যা অতিরঞ্জিত: বর্মী সেনাপ্রধান


সংবাদ সমগ্র - 12.10.2017

রাখাইন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীর সংখ্যা নিয়ে অতিরঞ্জন করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন মিয়ানমারের সেনাপ্রধান মিন অং হ্লাইং।

বুধবার ইয়াঙ্গুনে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত স্কট মারসিয়েলের সঙ্গে বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে নিজেদের অবস্থান বিস্তারিত তুলে ধরেন মিয়ানমারের প্রতিরক্ষা বাহিনীর কমান্ডার-ইন-চিফ হ্লাইং। ওই বক্তব্য তার ফেইসবুক পাতায় তুলে দেওয়া হয়েছে।

রাখাইন পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদমাধ্যমে সঠিক তথ্য আসছে না দাবি করে হ্লাইং বলেন, “বাংলাদেশে পালিয়ে যাওয়া বাঙালির সংখ্যা ‘অনেক বড়’-একথায় অতিরঞ্জন আছে।”

তবে কত সংখ্যক মানুষ পালিয়ে এসেছে সে বিষয়ে কোনো পরিসংখ্যান দেননি তিনি।

রাখাইনে জ্বলছে রোহিঙ্গাদের গ্রাম: ছবি-রয়টার্স রাখাইনে জ্বলছে রোহিঙ্গাদের গ্রাম: ছবি-রয়টার্স জাতিসংঘের হিসেবে গত দেড় মাসে ৫ লাখের বেশি রোহিঙ্গা রাখাইন থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসছে। এই স্রোত এখনও থামেনি।
মিয়ানমারের সেনাপ্রধান বলেন, পর্দার অন্তরাল থেকে সংবাদ মাধ্যমকে ব্যবহার করে রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে ‘অপপ্রচার ও উস্কানি’ দেওয়া হচ্ছে।
রোহিঙ্গাদের ‘বাঙালি’ বলে উল্লেখ করেন মিন অং হ্লাইং। এই দাবির পক্ষে যুক্তি দিয়ে তিনি বলেন, ১৮২৪ সালে ব্রিটিশ উপনিবেশের অধীনে আসার পর বাঙলা থেকে বাঙালিরা ওই এলাকায় কৃষি শ্রমিক হিসেবে আসে। এছাড়া ওই আমলেই বুচিডং-মংডু রেললাইন প্রকল্পের শ্রমিক হিসেবে তারা আসে। এরপর তারা সেখানে স্থায়ী বসবাস শুরু করে। পরে তাদের জনসংখ্যা ধারাবাহিকভাবে বাড়ে।

“সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বাঙালিরাই ওই এলাকায় সংখ্যাগরিষ্ঠ, মোট জনসংখ্যার ৯৫ শতাংশ। রাখাইন ও অন্যান্য স্থানীয় জনগোষ্ঠী মোট জনসংখ্যার মাত্র ৫ শতাংশ হওয়ায় তারা সংখ্যালঘু হয়ে পড়েছে।




Loading...
সর্বশেষ সংবাদ


Songbadshomogro.com
Contact Us.
Songbadshomogro.com
452, Senpara, Parbata, Kafrul
Mirpur, Dhaka-1216


close