সোমবার ২৩ অক্টোবর ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » Box 2 » প্রধানমন্ত্রীও ভোট দেননি, কিসের জনপ্রতিনিধিত্ব?


প্রধানমন্ত্রীও ভোট দেননি, কিসের জনপ্রতিনিধিত্ব?


সংবাদ সমগ্র - 08.08.2017

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, প্রহসনের নির্বাচনে জোর করে ক্ষমতায় এসেছে আওয়ামী লীগ। এমনকি প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রে যাননি। তাহলে এরা কিসের জনপ্রতিনিধিত্ব দাবি করেন? মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। সারাদেশে আইনজীবীদের মধ্য থেকে সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।


এসময় ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়কে ঐতিহাসিক মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, এ রায়ের পর সরকারের কোনো নৈতিক অধিকার নেই ক্ষমতায় থাকার। এই রায়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের রাজনীতি ও সমাজের চিত্র উঠে এসেছে।
তিনি বলেন, ‘মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা জানতে পারলাম- সোমবার মন্ত্রিপরিষদের সভায় ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তোলার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এখন প্রশ্নটা হচ্ছে কার বিরুদ্ধে এই জনমত গড়ে তুলবেন? যে রায়ে জনগণের আশা আকাঙ্খা প্রতিফলিত হয়েছে তার বিরুদ্ধে জনমত!’
বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘আমরা স্পষ্ট করে বলছি- সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর রায়ের বিরুদ্ধে জনমত গঠনে জনগণকে পাশে পাবে না তারা (আওয়ামী লীগ সরকার)।’
তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার এখন জনবিচ্ছিন্ন। তারা প্রহসনের নির্বাচনে জোর করে ক্ষমতায় এসেছে। এমনকি প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রে যাননি। তাহলে এরা কিসের জনপ্রতিনিধিত্ব দাবি করেন?’
বিএনপি আদালত ও বিদেশিদের উপর নির্ভর করে ক্ষমতায় আসতে চায়- আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন মির্জা ফখরুল।
তিনি বলেন, বিএনপি কখনো কারো সঙ্গে রাতের অন্ধকারে আঁতাত কিংবা সমঝোতার মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেনি। বিএনপি যতবার ক্ষমতায় এসেছে, জনগণের ভোটেই এসেছে। পক্ষান্তরে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ভোট ছাড়া জোর করে প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে এবং বিদেশি রাষ্ট্রের সহযোগিতায় ক্ষমতায় এসেছে বলে সবাই জানে।
সরকারের নির্যাতন-নিপীড়নের চিত্র তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, হত্যা আর গুম অব্যাহত রয়েছে। সারাদেশে বিএনপির ৭৪ হাজার নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে প্রায় ১০ লাখের অধিক মামলা দেয়া হয়েছে। প্রতিদিন নতুন নতুন মামলা দেয়ার উদ্দেশ্য একটাই- বিএনপিকে রাজনীতি থেকে দূরে সরিয়ে রাখা।
দলের আইনজীবীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ঐক্যবদ্ধ হোন। এই সরকার সহজে ক্ষমতা ছেড়ে দেবে না। সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠায় তাদেরকে বাধ্য করতে হবে।’
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী রায়ের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তোলা হবে বলে মন্ত্রিপরিষদের আলোচনায় আমরা মর্মাহত ও আতঙ্কিত বোধ করছি। কেননা না এই রায়ের বিরুদ্ধে যারা কথা বলেন, এটাকে বিতর্কিত করেন, তারা বাংলাদেশকে ভালোবাসেন না। তারা চান না বিচার বিভাগ স্বাধীন থাকুক।’
তিনি বলেন, ‘এই সরকারের জনসমর্থন তলিয়ে গেছে। এজন্য তারা বিএনপিকে কোনো সভা-সমাবেশ করতে দিতে চান না, ভয় পান। বিএনপির কর্মসূচিতে বাধা প্রদান করেন। তবে বাধা সত্ত্বেও দেশের মানুষ আগামী নির্বাচনে খালেদা জিয়াকে ভোট দেবেন এতে কোনো সন্দেহ নাই।’
বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি জয়নুল আবেদীনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আমিনুল হক, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, খন্দকার মাহবুব হোসেন, নিতাই রায় চৌধুরী ও আহমেদ আযম, যুগ্ম-মহাসচিব ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক সানা উল্লাহ মিয়া প্রমুখ।




Loading...
সর্বশেষ সংবাদ


Songbadshomogro.com
Contact Us.
Songbadshomogro.com
452, Senpara, Parbata, Kafrul
Mirpur, Dhaka-1216


close