মঙ্গলবার ২২ অগাস্ট ২০১৭
  • প্রচ্ছদ » অদ্ভুদ খবর » চার সন্তান ও স্বামীকে খুনের পর মার্কিন নারীর উদ্ভট অঙ্গভঙ্গি, আদালতের বিস্ময়


চার সন্তান ও স্বামীকে খুনের পর মার্কিন নারীর উদ্ভট অঙ্গভঙ্গি, আদালতের বিস্ময়


সংবাদ সমগ্র - 08.07.2017

ওয়াশিংটন: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ এক অভিবাসী নারীর বিরুদ্ধে তার চার শিশু সন্তান ও স্বামীকে খুনের দায়ে অভিযুক্ত করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার তাদের জর্জিয়ার বাড়িতে এই হত্যার ঘটনা ঘটে।

এই হত্যার দায়ে শুক্রবার তাকে আদালতে নেয়া হলে তিনি মিডিয়ার ক্যামেরার সামনে অদ্ভুত অঙ্গভঙ্গি করেন। হাস্যজ্জ্বল ভঙ্গিতে তিনি তার দুই হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করেন এবং দুই হাত ‘প্রার্থনার’ ভঙ্গিতে তুলে ধরেন।

যুক্তরাষ্ট্রের কাস্টমস এবং ইমিগ্রেশন এনফোর্সমেন্ট মুখপাত্র ব্রায়ান কক্স অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে জানান, মারিয়া ইসাবেল গারডোনো মার্টিনেজ (৩৩) নামে ওই নারী মেক্সিকো থেকে অবৈধভাবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করেন।
তবে, তার বাকি পরিবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বৈধভাবে এসেছিল কিনা তা এখনো পরিষ্কার নয়।

শুক্রবার প্রথমবারের মতো মার্টিনেজকে আদালতে হাজির করা হয়। তার বিরুদ্ধে পাঁচটি আক্রোশপূর্ণ হত্যা, পাঁচটি হত্যা মামলা এবং ছয়টি উত্তেজিত হামলার অভিযোগ আনা হয়েছে।
আইনজীবী নিযুক্ত করবেন কিনা- এমন প্রশ্নে তিনি গিন্ন্যেট কাউন্টি ম্যাজিস্ট্রেট বিচারক মাইকেল থর্পকে বলেন, তার আইনজীবী হচ্ছে জনগণ এবং তার বিশ্বাস।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে মার্টিনেজ তার লোগানভিলের বাড়িতে তার চার শিশু সন্তান ও স্বামীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেন। বাড়িটি আটলান্টা থেকে প্রায় ৩০ পূর্বে অবস্থিত। পরে ভোর ৫টার কিছু আগে তিনি ৯১১ নাম্বারে ডায়াল করে পুলিশকে ডাকেন।
হত্যার শিকার ওই চার সন্তান হলো – ইসাবেলা মার্টিনেজ (১০), ড্যাকটো রোমেরো (৭), দিলান রোমেরো (৪) ও এক্সেল রোমেরো (২) এবং তাদের বাবা মার্টিন রোমেরো (৩৩)। পঞ্চম শিশু হিসেবে ৯ বছর বয়সী ডিয়ানা বেঁচে গেলেও ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরে পুলিশ এসে মার্টিনেজকে তাৎক্ষণিক গ্রেপ্তার করে এবং ওই দিনই তাকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করা হয়।

আদালতে মার্টিনেজ অন্যান্য কয়েদীদের সঙ্গে বসে থাকেন। বিচারক থর্প তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো পড়ে শুনানোর সময় তিনি ক্যামেরার সামনে হাস্যজ্জ্বল ভঙ্গিতে তার দুই হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করেন এবং তারপর দুই হাত ‘প্রার্থনার’ ভঙ্গিতে তুলে ধরেন এবং তার বাহু প্রসারিত করে সামনে পিছনে দোলাতে থাকেন।

তার এমন অঙ্গভঙ্গিতে বিরক্তি প্রকাশ করে বিচারক থর্প বলেন, ‘ম্যাম, আমি আপনাকে ক্যামেরার জন্য এসব অঙ্গভঙ্গি অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য বলছি। এটা সম্ভবত আপনার সুবিধা বয়ে আনবে না।’
মারাত্মক ছুরিকাঘাতে ভয়াবহ এই হত্যার উদ্দেশ্য এখনো অস্পষ্ট।

গিন্ন্যেট কাউন্টি পুলিশ এক বিবৃতিতে বলে, ‘কি উদ্দেশ্যে নির্দোষ শিশুদের ও তার পত্নীকে হত্যা করা হয়েছে তা আমরা এখনো বুঝতে পারছি না।’

এতে বলা হয়, ‘এটি কেবল হত্যার শিকারদের জন্যই নয়, বরং বর্ধিত পরিবার, প্রতিবেশি এবং সম্প্রদায়ের জন্য একটি ভয়ঙ্কর অপরাধ।’




Loading...
সর্বশেষ সংবাদ


Songbadshomogro.com
Contact Us.
Songbadshomogro.com
452, Senpara, Parbata, Kafrul
Mirpur, Dhaka-1216


close